সোনারগাঁয়ে অজ্ঞাত লাশের পরিচয় সনাক্ত করেছে এসআই আজাদ

2

সোনারগাঁ বার্তা ২৪ ডটকম: গত ৪ অক্টোবর শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের পিয়ার নগর এলাকার ঝোপ থেকে উদ্ধার করা অজ্ঞাত কিশোরীর গলিত লাশের পরিচয় সনাক্ত করেছে সোনারগাঁ থানা পুলিশ। গতকাল রাতে সোনারগাঁ থানার এসআই আবুল কালাম আজাদ ওই কিশোরীর বাড়িতে গিয়ে কিশোরীর গায়ে পরিহিত জামা-কাপড় ও জুতা কিশোরীর বাবা-মাকে দেখালে তারা জানায় এ জামাটি তার নিখোঁজ মেয়ে জান্নাতুল জেবার। সে ৩০ তারিখ রাত ১২টার সময় নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় তার মা-বাবা ডেমরা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরীও করেন।
সোনারগাঁ থানার এসআই আবুল কালাম আজাদ জানান, গত ৪ অক্টোবর সন্ধ্যায় উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের পিয়ার নগর এলাকার একটি ঝোপের ভেতর একটি গলিত লাশ দেখতে পেয়ে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গলিত হাত, পা ও মাথা বিহীন কিশোরীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলা মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলা দায়েরের পর অজ্ঞাত লাশের পরিচয় সনাক্ত করতে কাজ শুরু করেন তিনি। লাশ উদ্ধারের সময় মেয়ে গায়ে পরিহিত জামা-কাপড় ও জুতা নিয়ে পুলিশ দেশের বিভিন্ন থানায় যোগাযোগ করেন কোথায় নিখোঁজ কোন অভিযোগ কিংবা ডায়েরী হয়েছে কিনা। খোঁজতে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে ডেমরা থানায় একটি মেয়ে নিখোঁজ রয়েছে। সেই সুত্র ধরে পুলিশ লাশের জামাকাপড় ও জুতা নিয়ে নিখোঁজ মেয়ের বাসায় গেলে তার বাবা-মা তার মেয়ের লাশ থেকে উদ্ধার করা জামা কাপড় ও জুতা দেখে চিনতে পারে সে তাদের নিখোঁজ মেয়ে জান্নাতুল জেবা।
আবুল কালাম আজাদ আরো জানান, জান্নাতুল জেবা, ঢাকার যাএাবাড়ীর কোনাপাড়া এলাকার মান্নান উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ৮ম অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী। সে গোপালগঞ্জ জেলার চরমানিকদা গ্রামের দিদারের মেয়ে। তারা কোনাপাড়া এলাকায় জনৈক মোশাররফের বাড়ির ভাড়াটিয়া।

নিহত ছাত্রীর মা মানছুরা বেগম বার বার কান্নায় ভেঙে পড়ে বলেন, ৩০ সেপ্টেম্বর রাতে কে বা কাহারা আমার মেয়েকে ফুসলিয়ে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গেছে। অনেক খোজাখুজি করেও আমরা আমাদের মেয়েকে পাইনি। গতকাল রাতে জানতে পাই কে বা কাহারা আমার মেয়েকে সোনারগাঁয়ে নিয়ে এসে হত্যা করেছে, আমি এর ন্যায় বিচার চাই, আমি এর ন্যায় বিচার চাই।
সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, লাশের পরিচয় পাওয়া গিয়েছে। অতি অল্প সময়ের মধ্যেই জড়িত আসামীদের গ্রেফতার করে হত্যাকান্ডের মুল রহস্য বের হয়ে আসবে বলে আশা করেন।

2