মামলা তুলে নিতে বাদিকে মাদক ব্যবসায়ীর প্রান নাশের হুমকি

4

সোনারগাঁ বার্তা ২৪ ডটকম: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের ছোট কাজিরগাঁও গ্রামে মাদক ব্যবসায় বাধা দেওয়ায় কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করার পর থানায় মামলা দায়ের করেও হুমকির মুখে বাদি ও তার পরিবারের সদস্যরা। মামলা তুলে নেওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত প্রাননাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসায়ী রুবেল ও তার সহযোগীরা। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় সাধারন ডায়েরী করা হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার মোগরাপাড়া ও সনমান্দী ইউনিয়ন এবং সোনারগাঁ পৌরসভা সহ বিভিন্ন এলাকায় দীর্ঘ দিন ধরে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছে ছোট কাজিরগাঁও গ্রামের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী রুবেল হোসেন ওরফে কুত্তা রুবেল ও তার সহযোগীরা। তাদের এই মাদক ব্যবসায় বাধা দিয়ে আসছে একই গ্রামের নজরুল ইসলাম ভুইয়ার ছেলে নাজমুল ইসলাম বাপ্পী। তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় গত ০১ ডিসেম্বর মাদক ব্যবসায়ী রুবেল হোসেন, তার স্ত্রী লিপি আক্তার, ভাই অপু মিয়া, বড় ভাইয়ের ছেলে রবীন হোসেন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নাজমুল ইসলাম বাপ্পীকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে। তার স্ত্রী তাকে বাচাতেঁ এগিয়ে আসলে তাকেই কুপিয়ে আহত করা হয়। এ ঘটনায় বাপ্পীর স্ত্রী ফারিয়া আক্তার বাদি হয়ে তাদের বিরুদ্ধে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়ের করেন।

এদিকে মামলা করার পর থেকে মামলা তুলে নিতে বাদি ও তার পরিবারের সদস্যদের প্রাননাশের হুমকি দিয়ে আসছে মাদক ব্যবসায়ী রুবেল হোসেন ও তার সহযোগীরা। আসামীদের প্রতিনিয়ত হুমকিতে আহত নাজমুল  ইসলাম বাপ্পী, তার স্ত্রী ফারিয়া ও এক বছরের শিশু সন্তানকে নিয়ে অন্যত্র আত্মীয়ের বাসায় আশ্রয় নিয়েছেন। এরই মধ্যে রুবেল হোসেনের স্ত্রী লিপি আক্তার ও ভাই অপু আদালত থেকে জামিন নিয়ে আসেন।

গত (১০ ডিসেম্বর) মঙ্গলবার ফারিয়া আক্তার তার স্বামীর জন্য মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় ঔষধ কিনতে গেলে আসামী রুবেল হোসেন, তার স্ত্রী লিপি আক্তার, অপু ও রবীন সহ মামলা তুলে নিতে চাপ দেন। মামলা তুলে না নিলে তার স্বামী নাজমুল ইসলাম বাপ্পী ও শিশু সন্তানকে হত্যা করে গুম করে দেওয়ার হুমকি দেন। পরে গত ১১ ডিসেম্বর বুধবার ফারিয়া আক্তার বাদি হয়ে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সোনারগাঁ থানায় সাধারন ডায়েরী করেন।

ফারিয়া আক্তার জানান, মাদক ব্যবসায় বাধা দেওয়া আমার স্বামীকে কুপিয়ে আহত করেছে। আমরা নিরাপত্তার জন্য বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছি। এখন মাদক ব্যবসায়ী রুবেল হোসেন ও তার সহযোগীরা মামলা তুলে নিতে প্রতিনিয়ত হত্যা করে গুম করে দেওয়ার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। আমি পরিবার নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

স্থানীয় এলাকাবাসীরা জানায়, ছোট কাজীরগাঁও গ্রামের রুবেল হোসেন ওরফে কুত্তা রুবেল ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে বিপুল পরিমান ফেন্সিডিল সহ পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়। তার বিরুদ্ধে পুলিশ বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করে। যার নং-২৬ তাং-২২.০২.২০১৭ ইং

সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত চলছে। বাদির পরিবারকে হুমকির বিষয়ে থানায় সাধারন ডায়েরী নেওয়া হয়েছে।

4