সোনারগাঁ থানার এএসআই সামাদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

6

সোনারগাঁ বার্তা ২৪ ডটকম : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে এক গৃহবধুকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে (২২) কে সোনারগাঁ থানার এএসআই আব্দুস সামাদ একাধিকবার ধর্ষন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার বিকালে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের বরাবর ওই গৃহবধু বাদি হয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। 

অভিযোগে গৃহবধূ পলি আক্তার উল্লেখ করেন, গৃহবধু গত এক বছর আগে গ্রেফতারকৃত আসামীকে ছাড়াতে উপজেলার মোগরাপাড়া এলাকায় এসে এএসআই আব্দুস সামাদের সাথে পরিচয় হয়। এ সময় আব্দুস সামাদ ওই গৃহবধুর ফোন নাম্বার সংগ্রহ করে বিভিন্ন সময় কথার বলার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে সাংসারিক পরিচয় দিলে এএসআই ওই নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখায়। এতে দুইজনের মধ্যেই সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরে ওই নারীকে নিয়ে বন্দর এলাকার অবস্থিত ক্যাসেল রেস্টুরেন্ট সহ ঢাকার বিভিন্ন আবাসিক হোটেল নিয়ে একাধিক বার ধর্ষন করে। এ বিষয়টি ওই নারীর পরিবারে জানাজানি হলে এএসআই আব্দুস সামাদকে বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করেন গৃহবধু। এ সময় গৃহবধুকে বিয়ে করবে এমন আশ্বাস দিয়ে গত ২৪ জুন বুধবার সকালে থানার পাশে একটি ফ্লাটে আবারো ধর্ষন করে। তখন বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করলে আব্দুস সামাদ ওই গৃহবধুকে বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে হত্যার হুমকি দেয়।

গৃহবধু জানান, বিষয়টি জানাজানি হলে কয়েকদিন আগে আব্দুস সামাদ আমাকে ফোন দিয়ে তার ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়। এসময় তার স্ত্রীসহ আব্দুস সামাদ আমার হাত পা বেঁধে শারিরীক নির্যাতন করেন। সুষ্ট বিচারের দাবী জানান তিনি।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার এএসআই আব্দুস সামাদ বলেন, মানুষতো কত কথা বলতে পারে। কাউকে হারানোর জন্য বা কারো মানসম্মান হানী করার ইচ্ছা থাকলে কত কথাই বলবে।

নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম জানান, অভিযোগ পেয়ে তদন্তের জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

6